Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কী সেবা কীভাবে পাবেন

১। ভূমি উন্নয়ন কর নির্ধারণ ও আদায়:

ভূমি উন্নয়ন করের বকেয়া ও হাল দাবী নির্ধারণের ব্যবস্থা গ্রহণ, বিভিন্ন সংস্থার নিকট পাওনা বকেয়া ভূমি উন্নয়ন করের বিবরণী প্রস্ত্তত, বিভিন্ন সংস্থার নিকট থেকে দীর্ঘদিন অনাদায়ী দাবী সম্পর্কে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মন্ত্রণালয়ের দৃষ্টি  আকর্ষণে ব্যবস্থা, দাবী আদায়ে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ ও আদায় নিশ্চিতকরণ  খেলাপী তালিকা প্রস্ত্তত (রিটার্ণ-৩), ভূমি উন্নয়ন কর সংক্রান্ত মোকদ্দমা নিম্পত্তি, সার্টিকেট মোকদ্দমার জন্য রিকুইজিশন দাখিলের ব্যবস্থা, আদায়কৃত অর্থ যথাযথ খাতে জমাকরণের নিশ্চয়তা বিধান।

২। নামজারী/জমা খারিজ অনুমোদনঃ

প্রার্থককে নির্ধারিত ফরমে ২০(বিশ) টাকার কোট ফি ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয়ে আবেদন করতে  হয়।

৩। সায়রাতমহল ব্যবস্থাপনা:

হাট-বাজার ব্যবস্থাপনা:হাট বাজার, হাট-বাজারের তালিকা সংরক্ষণ ও হালনাগাদকরণ, হাট-বাজারের পেরিফেরী নির্ধারণ/পুনঃ নির্ধারণ, বাজার ও চান্দিনা ভিটির সীমানা নির্ধারণ , নতুন হাট-বাজার স্থাপন ও তালিকাভুক্তির পদক্ষেপ, হাট-বাজারে ইজারা প্রদানের সহায়তা ও ইজারা মূল্য নোটকরণ, হাট-বাজার ইজারার যে অংশ সরকারী খাতে জমা করার বিধাণ রয়েছে তা জমা করা হয়েছে কিনা যাচাই করা ও নোট করা, ইজারাকৃত হাট-বাজারের দখল প্রদান ও টোল নির্ধারণে সহায়তা, অনুমোদিত টোল চার্ট প্রকাশ্য স্থানে টানিয়ে রাখা, অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ/অবৈধ দখল রোধ, অবলুপ্ত হাট-বাজারের তালিকা সংরক্ষণ করা।

 

ফেরী ঘাট-ব্যবস্থাপনা: ফেরী ঘাটের তালিকা সংরক্ষণ ও হালকরণ, ইজারা অর্থের সরকারী অংশ জমার হিসাব সংরক্ষণ।

 

জলমহাল ব্যবস্থাপনা: উন্মুক্ত ও বন্ধ সকল জনমহালের সঠিক ও হালনাগাদ তালিকা প্রণয়ন ও বিবরণী প্রস্ত্তুতকরণ, খাস পুকুর/দীঘি ও, বদ্ধ জলাশয়ের সীমানা নির্ধারণ, অবৈধ দখল থেকে খাস পুকুর/দীঘি/বদ্ধ জলাশয় পুনরুদ্ধার, ইউনিয়ন পরিষদ/উপজেলা পরিষদ/পৌরসভা/পৌর কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপনায় ন্যস্ত জলাশয়গুলির সঠিক তালিকা সংরক্ষণ, খাসজমিতে চিংড়ীমহালের তালিকা প্রস্ত্তত , অন্যান্য চিংড়ী মহাল থাকলে তার তালিকা প্রস্ত্তুত ও আদায়রে ব্যবস্থা করণ, এ সকল মহালর বন্দোবস্ত প্রদানের পদক্ষেপ গ্রহণ ও সহযোগিতা।

ভাসানমহাল-ভাসানমহালের এলাকা চিহ্নিতকরণ ও তালিকা প্রস্ত্তত, ভাসানমহাল ইজারা প্রদানের বিষয়।

বিবিধ সায়রাতমহাল- বালু মহাল/পাথর মহালসহ অন্যান্য সকল মহালের এলাকা চিহ্নিতকরণ , বিবিধ শ্রেনীর মহালের তালিকা/বিবরণী প্রস্ত্তত ও সংরক্ষণ, বিবিধ মহালের ইজারা প্রদানে সহায়তা/কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ। 

 

সরকারী খাস পুকুরঃপুকুর ইজারার জন্য  বিজ্ঞপ্তি / নোটিশ জারী করা হয়। সর্বোচ্চ দরদাতা বরাবর ইজারা অথবা খাস কালেকশনের মাধ্যমে একসনা বন্দোবস্ত প্রদান করা হয়।

৪। খাস জমি ব্যবস্থাপনা:

খাসজমি চিহ্নিতকরণ , খাসজমি উদ্ধারের পদক্ষেপ গ্রহণ  ,এস,এ,অপারেশনে ভুলবশতঃ ব্যক্তির নামে রেকর্ডসহ, নদী পয়স্তি জমি চিহ্নিতকরণ, দিয়ারা জরিপের ব্যবস্থা ও রেজিস্টারভূক্তি, ভূমি সংস্কার কার্যক্রম বাস্তবায়নের পদক্ষেপ গ্রহণ, ভূমিহীনদের মধ্যে খাস জমি বিতরণ কাযক্রম ত্বরান্বিতকরণ, আদর্শ গ্রাম প্রকল্প বাস্তবায়ন, চারণ ভূমি,হালট,গোপাট ইত্যাদি তদারকি দখল/সীমানা বহালকরণ, পরিত্যক্ত নদী/জলাশয় তদারকি,সীমানা নির্ধারন এবং খাস তালিকা হাল-নাগাদকরণ, ইউয়িন ভূমি অফিস তথা কাছারী কম্পাউন্ডের খাস জমি রক্ষণাবেক্ষণ, লা-ওয়ারিশ/পরিত্যক্ত জমি খাস খতিয়ানভুক্তির পদক্ষেপ গ্রহণ।

স্ব -স্ব ইউনিয়ন ভূমি অফিসে বিজ্ঞপ্তি জারী করা হয়।  খাস জমির বন্দোবস্তের জন্য নির্ধারিত ফরমে সুবিধাভোগীগণ/ভূমিহীন ব্যক্তি সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয়ে আবেদন করতে পরেন ।

 

৫। আবাসন/অশ্রয়ন প্রকল্প ও আদর্শগ্রামঃপ্রকল্পের নিমার্ণ কাজ সমাপ্তির পর ভূমিহীন সুবিধাভোগীদের  আবেদন পত্রগুলি যাচাই বাছাই অন্তে এবং  উপজেলা খাস জমি বন্দোবস্ত কমিটির সিদ্ধান্ত  মতে ঘর বরাদ্দ দেওয়া হয়।

৬। সরকারী গাছ নিলাম ডাকঃবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বহুল প্রচার করা অন্তে প্রকাশ্য নিলাম ডাকের ব্যবস্থা করা হয়।

৭। অর্পিত সম্পত্তি ব্যবস্থাপনা:

অর্পিত সম্পত্তি সংক্রান্ত পাঁচটি রেজিষ্টারের যথাযথ সংরক্ষণ, অর্পিত সম্পত্তি তালিকা ( ক ও খ তফসিলভূক্তসহ সেন্সাস তালিকা) এবং অর্পিত সম্পত্তি কেইসের তফসিলসহ তালিকা সংরক্ষণ, মৌজাওয়ারী প্লটওয়ারী অর্পিত সম্পত্তির ভোগদখলকারীদের তালিকা প্রস্ত্তত, অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদের পদক্ষেপ গ্রহণ ,অর্পিত সম্পত্তি যথাযথ ইজারার ব্যবস্থা, প্রতিটি ইউনিয়ন ভূমি অফিসের অর্পিত সম্পত্তির হোল্ডিংগুলি চিহ্নিতকরণ এবং ঐ সকল হোল্ডিংয়ে কোন নামপত্তন জমা খারিজ বা জমা একত্রীকরণ হয়ে থাকলে তার সংশ্লিষ্ট অংশটুকু বাতিলকরণ , অর্পিত সম্পত্তি ২নং জমাবন্দি রেজিস্টারের প্রতিটি সংশ্লিষ্ট হোল্ডিংয়ে লাল কালি দিয়ে মার্ককরণের ব্যবস্থা গ্রহণ, এই সংক্রান্ত ট্রাইব্যুনাল মোকদ্দমার ক্ষেত্রে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ, অর্পিত সম্পত্তির ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধের ব্যবস্থা গ্রহণ, অর্পিত সম্পত্তি সম্পর্কিত প্রতিবেদন প্রেরণ , অর্পিত সম্পত্তি থেকে অবমুক্তির বিষয়ে মতামত প্রদান। 

অর্পিত সম্পত্তি একসনা ও  পুকুর ইজারাঃ

একসনা ইজারার জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি)এর বরাবর আবেদন করতে হয়।

 পুকুর ইজারার জন্য  বিজ্ঞপ্তি / নোটিশ জারী আন্তে  সবের্বাচ দরদাতা বরাবর ইজারা বন্দোবস্ত প্রদান করা হয়।

৮।  সার্টিফিকেট কার্যক্রম (রেন্ট সার্টিফিকেট):

সার্টিফিকেট অফিসারের দায়িত্ব পালন রিকুইজিশন দাখিল ও আদায় প্রতিবেদন সংগ্রহ, সংশ্লিষ্ট রেজিষ্টারসমূহ পরীক্ষা, রেজিস্টার ৯ ও ১০ মিলকরণ , যথাযথভাবে প্রসেস/নোটিশ জারি নিশ্চিতকরণ, সার্টিফিকেট সংক্রান্ত অন্যান্য পদক্ষেপ গ্রহণ , সার্টিফিকেট সেল (নিলামে বিক্রয়) সংক্রান্ত পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ।

৯। বিবিধ মোকদ্দমাঃ যে কোন আদেশের বিরুদ্ধে প্রজা ক্ষুদ্ধ হলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর নিকট রিভিউ আবেদন করতে পারেন এবং দো-তরফা শুনানী অন্তে  মোকদ্দমা নিষ্পত্তি হয়।

১০। ভূমি হুকুম দখল সংক্রান্ত দায়িত্বাবলী:

অধিগ্রহণ সংক্রান্ত নোটিশ জারিতে সহায়তা (৩ ধারার নোটিশ), বিভিন্ন সংস্থার অনুকূলে বরাদ্দকৃত অব্যবহৃত জমি চিহ্নিতকরণ, এল,এ,কেইসের মাধ্যমে প্রাপ্ত এরূপ অব্যবহৃত জমি সংক্রান্ত বিস্তারিত    বিবরণ জেলা প্রশাসক তথা জেলা কালেক্টরের নিকট প্রেরণ, জেলা প্রশাসক/জেলা কালেক্টরের অনুমোদনক্রমে এ সকল জমি সরকারের রাজস্ব বিভাগের আওতাধীনে নেওয়া ও ব্যবস্থাপনা, বিভিন্ন সংস্থার এরূপ অধিগ্রহণকৃত জমির পূর্ণাঙ্গ তালিকা সংরক্ষণ, এল,এ,কেইসের মাধ্যমে হস্তান্তরিত জমির নামপত্তন/রেকর্ড হালকরণ।